বড়াইগ্রাম-বনপাড়া পৃথক উপজেলা গঠনের লক্ষ্যে মতবিনিময় সভা

বড়াইগ্রাম (নাটোর) প্রতিনিধি

0 12

নাটোরের বড়াইগ্রাম ও বনপাড়া পৃথক উপজেলা গঠনের লক্ষ্যে মত বিনিময় সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে।

বুধবার পৌর কনফারেন্স কক্ষে মেয়র মাজেদুল বারী নয়নের সভাপতিত্বে ও সাপ্তাহিক চলনবিল প্রবাহ সম্পাদক মাহমুদুল হক খোকনের সঞ্চালনায় মত বিনিময় সভা অনুষ্ঠিত হয়।

উক্ত সভায় বড়াইগ্রাম সরকারী অনার্স কলেজের রাষ্ট্রবিজ্ঞান বিভাগের বিভাগীয় প্রধান অধ্যাপক আমিনুল হক মতিন, জেলা জাসদের সাধারণ সম্পাদক ডিএম আলম, বাংলাদেশ ব্যাংকের যুগ্ম পরিচালক অহিদুল ইসলাম, ময়মনসিংহ কর অঞ্চলের যুগ্ম কর কমিশনার আশীষ কুমার সরকার, বড়াইগ্রাম সরকারী কলেজের পদার্থ বিদ্যা বিভাগের বিভাগীয় প্রধান শফীউল হাসান তীতু, ঢাকাস্থ নাটোর জেলা সাংবাদিক সমিতির সাধারণ সম্পাদক ও দৈনিক যুগান্তরের সাব এডিটর এমদাদুল হক, কোডস চেয়ারম্যান মন্টু ডানিয়েল, কক্সবাজার ডিসি কলেজের অধ্যক্ষ ইব্রাহিম হোসেন, সহকারী অধ্যাপক আলমগীর হোসেন, উপস্থিত ছিলেন।

অনুষ্ঠানে আরও উপস্থিত ছিলেন,  উপজেলা আওয়ামীলীগের সাবেক প্রচার সম্পাদক আব্দুল বারেক, উপজেলা জাতীয় শ্রমিক লীগের সাধারণ সম্পাদক আব্দুল জলিল প্রধান, যুবলীগ নেতা জাহাঙ্গীর আলম বাবর, সহকারী অধ্যাপক প্রজ্জল কুমার মন্ডল, পৌর আওয়ামীলীগের শ্রম বিষয়ক সম্পাদক রবিউল করিম, উপজেলা প্রেসক্লাব সভাপতি যুগান্তর ও ডেইলি অবজারভার প্রতিনিধি অহিদুল হক ও যুগ্ম সম্পাদক দৈনিক মানব কন্ঠ প্রতিনিধি মোহাম্মদ আলী গাজী, জোনাইল সেন্ট লুইস উচ্চ বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক জেম্স স্কট, পৌর যুবলীগের যুগ্ম আহ্বায়ক কাওসার আহমেদ অপুসহ বিভিন্ন পর্যায়ের ব্যক্তিরা বক্তব্য রাখেন।

সভায় বক্তারা বলেন, বড়াইগ্রাম উপজেলা নাম হলেও উপজেলা পরিষদ ভবন বনপাড়ায়। এ কারণে বড়াইগ্রামের প্রত্যন্ত অঞ্চলের বাসিন্দারা উপজেলা পরিষদের বিভিন্ন সেবা নিতে দুরবর্তী অঞ্চল বনপাড়ায় যেতে ভোগান্তিতে পড়েন। বর্তমান উন্নয়ন বান্ধব সরকার প্রশাসনিক সেবাসহ সরকারী সব ধরণের সেবাকে মানুষের দোরগোড়ায় নিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করছেন। তাই বড়াইগ্রাম ও বনপাড়া দুটি আলাদা উপজেলা করা হলে দুই অঞ্চলের বাসিন্দারাই উপকৃত হবেন।

একই সঙ্গে সাধারন নাগরিকরা অল্প সময়ে সীমিত পরিবহণ খরচের মাধ্যমে সরকারী সকল সুযোগ-সুবিধা পাবেন। এতে সাধারন নাগরিকদের মাঝে বর্তমান সরকারের প্রতি আস্থা ও ভালবাসা আরো বৃদ্ধি পাবে। তাই স্থানীয় সংসদ সদস্যের সহায়তায় বিষয়টি প্রধানমন্ত্রীর কাছে তুলে ধরার মাধ্যমে তৃণমুল মানুষের এ দাবি বাস্তবায়ন করতে হবে।

Leave A Reply

Your email address will not be published.