নাটোরে মঞ্চস্থ হলো গণহত্যার নাট্যরুপ ‘শহীদ সাগর’

নাটোর জেলা সংবাদদাতা

0 116

নাটোর, ৫ ডিসেম্বর, ২০২১ (বাসস) :স্বাধীনতার সূবর্ণ জয়ন্তী উপলক্ষে নাটোরে গণহত্যার নাট্যরুপ দেওয়া পরিবেশ থিয়েটার ‘শহীদ সাগর’ মঞ্চস্থ হয়েছে। গতকাল শনিবার রাতে নাটোরের নর্থ বেঙ্গল সুগার মিলস্ হাইস্কুল মাঠে বিপুল সংখ্যক দর্শক সমাগমে নাটকটির প্রদর্শনী হয়।

মুক্তিযুদ্ধের সময় সংঘটিত নারকীয় গণহত্যা নিয়ে বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমি সারাদেশে ৬৪ জেলাতে বধ্যভূমি বা তৎসংলগ্ন স্থানে পরিবেশ থিয়েটার পরিবেশনের উদ্যোগ নিয়েছে। এই কর্মসূচীর অংশ হিসেবে ১৯৭১ সালের ৫ মে নাটোরের নর্থ বেঙ্গল সুগার মিলস্ এর প্রশাসক লেফটেন্যান্ট আনোয়ারুল আজীমসহ মোট ৪২ জনকে ব্রাশ ফায়ারে হত্যার ঘটনার নাট্যরুপ ‘শহীদ সাগর’ প্রদর্শনীর আয়োজন করা হয়।

গণহত্যার নাট্যরুপ ‘শহীদ সাগর’-01
জেলা প্রশাসক শামীম আহমেদ নাটক মঞ্চায়নের পূর্বে উদ্বোধনী পর্বে সভা প্রধানের দায়িত্ব পালন করেন। উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন নাটোর-১ আসনের (লালপুর ও বাগাতিপাড়া) সংসদ সদস্য মোঃ শহিদুল ইসলাম বকুল। বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন নর্থ বেঙ্গল সুগার মিলস্ এর ব্যবস্থাপনা পরিচালক কৃষিবিদ হুমায়ুন কবীর এবং মুক্তিযোদ্ধা সংসদের সাবেক জেলা কমান্ডার আব্দুর রউফ। অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য দেন লালপুর উপজেলা নির্বাহী অফিসার উম্মুল বানীন দ্যুতি।

অনুষ্ঠানে বক্তারা বলেন, মহান মুক্তিযুদ্ধ জাতীয় জীবনের সবচে’ বড় অর্জন। মুক্তিযুদ্ধের ইতিহাস প্রজন্ম থেকে প্রজন্মের নিকট উপস্থাপন করতে হবে। সঠিক ইতিহাস জেনে নতুন প্রজন্ম দেশপ্রেমের চেতনায় শাণিত হবে। এরফলে তারা দেশ ও মানুষের কল্যাণে নিবেদিত প্রাণ হয়ে উঠবে।

গণহত্যার নাট্যরুপ ‘শহীদ সাগর’-03নাটকটির রচয়িতা ও নির্দেশক জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলাম বিশ্ববিদ্যালয়ের নাট্যকলা ও পরিবেশনা বিদ্যা বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক ড. সৈয়দ মামুন রেজা বলেন, এই নাটক নির্মাণ ও প্রদর্শনীর মাধ্যমে গণহত্যার শিকার হওয়া নিরস্ত্র সাধারণ মানুষের স্মৃতির প্রতি গভীর শ্রদ্ধা জানানো, নতুন প্রজন্মের কাছে এই ইতিহাস তুলে ধরা এবং গণহত্যার আন্তর্জাতিক স্বীকৃতি আদায় করা আমাদের লক্ষ্য।

নাটকটির প্রধান সমন্বয়কারী হিসেবে দায়িত্বপালনকারী জেলা শিল্পকলা একাডেমির কালচারাল অফিসার রাকিবিল বারী বলেন, বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমীর গবেষক দ্বারা নির্বাচিত হয় শহীদ সাগরের গণহত্যার ঘটনা। পরে এই ঘটনাকে নাট্যরুপ দেওয়া হয়। এই পরিবেশ থিয়েটারে লালপুরের চলন নাটুয়া ও বাগাতিপাড়ার বকুল স্মৃতি থিয়েটার এবং বিভিন্ন স্কুল কলেজের বিএনসিসি-স্কাউট সদস্যসহ প্রায় শতাধিক কলাকুশলী অংশগ্রহণ করেন।

মন্তব্য করুন।

আপনার মেইল প্রকাশিত হবে না।