প্রশ্নপত্র ফাঁস ঠেকাতে নজরদারি রাখা হবে তিনটি ক্ষেত্রে

0 39

সারাদেশে এবছরের এসএসসি ও সমমানের পরীক্ষা শুরু হতে যাচ্ছে ৩০শে এপ্রিল থেকে। তবে পরীক্ষার প্রশ্নপত্রফাঁস রোধে কঠোর অবস্থানে যাচ্ছে শিক্ষা মন্ত্রণালয়। প্রশ্নপত্র ফাঁস রোধ করার জন্য পরীক্ষা শুরুর আগে থেকেই প্রশ্নপত্র ছাপানোর সঙ্গে সংশ্লিষ্টদের নজরদারিতে রাখবে মন্ত্রণালয়।

সেই সাথে পর্যবেক্ষণ করা হবে ফেসবুকসহ অন্যান্য সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম এবং মোবাইল ব্যাংকিংয়ের সন্দেহজনক লেনদেন। প্রশ্নপত্রফাঁস সংক্রান্ত গুজব রোধেও ব্যবস্থা নেওয়া হবে। আজ মঙ্গলবার এসএসসি ও সমমানের পরীক্ষা নিয়ে আয়োজিত সভায় এসব সিদ্ধান্তের কথা জানান শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি।

প্রশ্নপত্রফাঁস সংক্রান্ত বিষয়ে আন্তঃশিক্ষা বোর্ডের সমন্বয়ক ও ঢাকা শিক্ষাবোর্ডের চেয়ারম্যান প্রফেসর তপন কুমার সরকার সংবাদ মাধ্যমকে বলেন, ‘প্রশ্নপত্রফাঁসের ব্যপারে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্য ও বিটিআরসি পক্ষ থেকে আমাদের জানানো হয়েছে, পরীক্ষা চলাকালীন ফেসবুকে প্রশ্নফাঁস নিয়ে গুজব এবং মোবাইল ব্যাংকিংয়ে সন্দেহজনক লেনদেন নজরদারি রাখা হবে।

বিটিআরসি প্রতিনিধি জানিয়েছেন, প্রশ্নপত্রফাঁসের গুজব যেসব গ্রুপ বা ব্যক্তি ফেসবুকে ছাড়াবে বা প্রশ্নফাঁস করে দেবে বলে প্রচারণা চালাবে তাদের আইডি শনাক্ত করে পুলিশের বিশেষ শাখা এবং গোয়েন্দা সংস্থাকে দেওয়া হবে। এসব ব্যক্তিদের মোবাইল লেনদেনও নজরদারিতে থাকবে। তিনি বলেন, প্রশ্নফাঁসের গুজবসৃষ্টিকারীদের পেজ দ্রুত বন্ধ করা হবে। এজন্য ফেসবুকসহ অন্যান্য কর্তৃপক্ষের সাথে বিটিআরসি সার্বক্ষণিক যোগাযোগ রক্ষা করবে। ৩০ এপ্রিল থেকে সারাদেশে একযোগে এসএসসি ও সমমানের পরীক্ষা শুরু হবে। একারণে ২৬ এপ্রিল থেকে ২৩ মে পর্যন্ত সকল কোচিং সেন্টার বন্ধ থাকবে।

এছাড়া চলতি বছরের আগষ্টের মাঝামাঝি সময়ে অনুষ্ঠিত হবে চলতি শিক্ষা বর্ষের এইচএসসি ও সমমানের পরীক্ষা। আজ মঙ্গলবার এসএসসি পরীক্ষা নিয়ে সংবাদ সম্মেলনে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে এইচএসসি পরীক্ষার বিষয়টি জানান শিক্ষা মন্ত্রী ডা. দীপু মনি। তিনি বলেন, ‘ কিছুটা পিছিয়ে দেওয়া হয়েছে এইচএসসির টেস্ট পরীক্ষা। আশা করছি আগষ্টের মাঝামাঝি সময়ে এইচএসসি ও সমমানের পরীক্ষা শুরু করতে পারবো।

জানা গেছে, আগামী জুলাই মাসের দ্বিতীয় সপ্তাহে এইচএসসি ও সমমান পরীক্ষার শুরু করার পরিকল্পনা থাকলেও সে সিদ্ধান্ত থেকে সরে আসছে শিক্ষা বোর্ডগুলো। এ পরীক্ষা আরো মাসখানেক পিছিয়ে আগস্টে শুরু হবে। সূত্র বলছে, দুই বছরের জন্য নির্ধারিত ছিল উচ্চ মাধ্যমিককের শিক্ষাক্রম।

মূলত ২০২১ সালে এসএসসি পরীক্ষা শেষে যারা একাদশ শ্রেণিতে ভর্তি হয়েছিল, মূলত তারাই এ বছর এইচএসসি ও সমমানের পরীক্ষা দেবেন। ২০২৩ সালের এইচএসসি পরীক্ষা পুনর্বিন্যাস করা পাঠ্যসূচিতে অনুষ্ঠিত হবে এই পরীক্ষা।

মন্তব্য করুন।

আপনার মেইল প্রকাশিত হবে না।